৭৩ বছর বয়সে খেললেন পেশাদার লীগ তাও ৯০ মিনিট ই মাঠে।

0
151

OURBANGLANEWS DESK।

অনেকের বাসার বাইরে হাঁটাচলা করতেই ইচ্ছে জাগে না ৭৩ বছর বয়সে। অনেকে বাসার পাশের ফুটপাত বা পার্কে হাঁটাচলাতেই খুশি থাকেন একটু স্বাস্থ্য–সচেতন হলে।

অনেকে ঝাঁপান সুইমিংপুলে। ফুটবল খেলা তাই বলে? সেটাও প্রীতি ম্যাচ নয় মনে হয় একটু বাড়াবাড়িই একেবারে পেশাদার ফুটবলের মাঠে নেমে যাওয়াটা।

সে কাজটাই করে দেখালেন ইসাক হায়িক। এই ইসরায়েলি পেশাদার ফুটবল ম্যাচের ৯০ মিনিটই খেলেছেন ৭৩ বছর বয়সেও।

ইরানি বংশোদ্ভূত এই ইসরায়েলি আগামী সপ্তাহে পালন করতে যাচ্ছেন ৭৪তম জন্মদিন। তাঁর পেশাদার ফুটবলের স্বাদ নেওয়ার সাধ জাগল গতকালই।

পেশাদার ম্যাচে নেমেছেন ইসরায়েলের ইরোনি অর ইয়েহুদা ক্লাবের হয়ে, ৯০ মিনিট খেলেছেন এবং

গিনেস বুকে নামও তুলে ফেলেছেন সবচেয়ে বেশি বয়সী ফুটবলার হিসেবে। দীর্ঘ এক কাণ্ডের জন্য মন্দ নয় ৯০ মিনিট!

হায়িক শুক্রবার বিকেলে নেমেছিলেন লিগা বেট দক্ষিণ এর ম্যাচে। দলটি ইসরায়েলি ফুটবলের চতুর্থ বিভাগের।

হায়িক গোলরক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন লিগ ম্যাচে ম্যাকাবি রামাত গানের বিপক্ষে খেলতে নেমে। স্কোরকার্ড স্মরণীয় দিনটায় দাগ লাগিয়েছে একটু।

হায়িকের দল হেরেছে ৫-১ গোলে। অবশ্য কেউ দোষ দিচ্ছেন না গোলরক্ষক হায়িকের। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, হায়িকের ছিল বেশ কয়েকটি ভালো সেইভ।

ইসাক হায়িক পূর্ণ তৃপ্ত নন ৯০ মিনিট খেলে রেকর্ড করে। ম্যাচ শেষে ইসাক নিজেকে প্রস্তুত ঘোষণা করেছেন আরেকটি ম্যাচের জন্য গিনেসের স্বীকৃতি বুঝে নিয়ে।

রয়টার্সকে ইসাক নিজের কীর্তিতে গর্বিত জানিয়েছেন, এটা আমার জন্য নয় শুধু, গর্বের ইসরায়েলের খেলার জগতের জন্যও।

এ কাণ্ডকে অবিশ্বাস্য বলেছেন তাঁর ৩৬ বছর বয়সী ছেলে মোশে হায়িকও। তবে স্বীকার করেছেন, তিনিই আগে ক্লান্ত হয়ে যেতেন বাবার সঙ্গে খেলার সময়।

রবার্ট কারমোনার রেকর্ড থেকে নাম মুছে গেছে ইসাকের কীর্তিতে। এই উরুগুইয়ানের বয়স ছিল ৫৩ বছর ২০১৫ সালে প্যান দে অ্যাজুক্যার হয়ে মাঠে নামার সময়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে