১৮ বছরের সঙ্গী ব্রেসলেট নিলামে তুললেন মাশরাফি

0
301

১৮ বছরের সঙ্গী ব্রেসলেট নিলামে তুললেন মাশরাফি

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে অসহায় হয়ে পড়া মানুষদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন অনেক ক্রিকেটার। নিলামে তুলেছেন প্রছন্দের জার্সি, ব্যাট, বল। এরই ধারাবাহিকতায় হাতের ব্রেসলেট নিলামে তুলছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা।

ক্যারিয়ারের শুরুতে তার হাতে শোভা পেত লাল-সবুজ রঙে ‘বাংলাদেশ’ লেখা একটি রিস্ট ব্যান্ড। এরপর রিস্ট ব্যান্ড বদলিয়ে রুপার তৈরি ব্রেসলেট পরা শুরু করেন। ব্রেসলেটিতে ইংরেজিতে তার নাম খোদাই করা আছে। গত ১৮ বছর ধরে ব্রেসলেটটি শোভা পাচ্ছে মাশরাফির হাতে। করোনা যুদ্ধে শামিল হতে নিজের প্রিয় ব্রেসলেটটি নিলামে তুলতে যাচ্ছেন মাশরাফি।

‘অকশন ফর অ্যাকশনের’ ফেসবুক পেজে নিলামটি অনুষ্ঠিত হবে। রবিবার রাত সাড়ে ১০ টায় শুরু হওয়া লাইভে নিলাম শেষ হবে। ব্রেসলেটটির ভিত্তিমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ লাখ টাকা। নিলাম থেকে পাওয়া পুরো অর্থ করোনা দুর্গত অসহায় মানুষদের সাহায্যে খরচ করা হবে।

মাশরাফি তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এ বিষয়ে লিখেছেন, ‘বিশ্বের এই সঙ্কটময় সময়ে বাংলাদেশের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য নিলামে তুলতে যাচ্ছি আমার ১৮ বছরের পুরনো সাথী, আমার অতি প্রিয় ব্রেসলেট। যার অর্থ চলে যাবে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনে গরীব দুঃস্থ মানুষের সাহায্যের জন্য।’

করোনাভাইরাসের সঙ্কট মোকাবিলায় শুরু থেকেই কাজ করে যাচ্ছেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি ও তার ‘নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন’। সরকারি অনুদান ছাড়াও নিজ অর্থায়নে দুস্থ মানুষদের সাহায্য করেছেন। করোনার প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া তিনশ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন।

এছাড়াও বিসিবি থেকে পাওয়া এক মাসের বেতনের অর্ধেকটাই দান করেছেন কর্মহীন মানুষদের সাহায্যে। নিজ অর্থায়নে নড়াইলের ১ হাজার ২০০ পরিবারকে খাদ্য সহায়তাও দিয়েছেন তিনি।

ডাক্তার ও সংবাদকর্মীদের সুরক্ষায় নিজ অর্থায়নে নড়াইলের ডাক্তার ও সংবাদকর্মীদের জন্য ৫০০ পিপিই (পার্সোনাল প্রটেকশন ইক্যুয়েপমেন্ট) দিয়েছেন মাশরাফি। এ ছাড়া বাড়ি বাড়ি গিয়ে রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছে তার নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল টিম।

নড়াইল সদর হাসপাতাল গেটে জীবাণুনাশক কক্ষ স্থাপন করে দেশব্যাপী সম্মানিত হয়েছেন মাশরাফির নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন। পাশে দাঁড়িয়েছেন নড়াইল কারাগারের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং বন্দীদের। তাদের নিরাপত্তার স্বার্থে সাবান, মাস্ক, গ্লাভস এবং স্যানিটাইজার বিতরণ করেছেন।

শুধু তাই নয় তামিম, মুশফিক, সাকিব, মাহমুদউল্লাহর সাথে মিলে টিম বয়দের এক লাখ টাকা করে দিয়েছেন মাশরাফি। এবার বহুদিনের সঙ্গী প্রিয় ব্রেসলেটটিও মাতবতার সেবায় উৎসর্গ করছেন জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক।

এর আগে, সাকিব আল হাসান তাঁর ২০১৯ বিশ্বকাপের ব্যাট নিলামে তোলেন, ব্যাটটি ২০ লাখ টাকায় বিক্রি হয়। এছাড়াও মুশফিকুর রহিমের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির ব্যাট নিলাম থেকে ১৭ লাখ টাকায় কিনে নিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদির ফাউন্ডেশন। এ ছাড়া তাসকিন আহমেদ, সৌম্য সরকার, অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলীসহ দেশের অন্য ক্রীড়াবিদেরাও নিজ নিজ স্মারক নিলামে তুলেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে