হুঁশিয়ারি সেনা কর্মকর্তার,”বন্দুক তুলে নিলে তাকে সরাসরি মেরে ফেলার”।

0
418

অনিম, OURBANGLANEWS DESK।

হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট জেনারেল ও চিনার কোর্পসের কমান্ডার কানওয়ালজিৎ সিং ধিলন, ‘দেশের বিরুদ্ধে গিয়ে কাশ্মীরের কেউ হাতে বন্দুক তুলে নিলে তাকে সরাসরি মেরে ফেলার ‘।

গত বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় আলোচিত জঙ্গি হামলায় ৪০ জন ভারতীয় আধা সামরিক বাহিনীর সদস্যের মৃত্যু ঘটে। জড়িতদের বিরুদ্ধে তাই এই সেনা কর্মকর্তা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, ‘দয়া মায়ার কোনো প্রশ্ন নেই।’

শ্রীনগরে আজ মঙ্গলবার জঙ্গিদের উদ্দেশে এমনই হুশিয়ারি বার্তা দেন তিনি । তিনি বলেন, ‘যার হাতেই বন্দুক দেখা যাবে তাকেই মেরে ফেলা হবে যদি সেই ব্যক্তি আত্মসমর্পণ না করে। ‘
এই দিকে পুলওয়ামা হত্যাকান্ডের পর তল্লাশী অভিযানে তিনজন নওজোয়ান সহ একজন সেনাকর্মকর্তা নিহত হয়েছে বলে জানা যায়।

ঐ অভিযানে তিন জঙ্গিও নিহত হওয়ার খবর পাওয়া যা, যাদের মধ্যে একজনকে পাকিস্তানি বলে দাবী করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

শ্রীনগরে এক সংবাদ সম্মেলনে কানওয়ালজিৎ সিং
কাশ্মীরি মায়েদের উদ্দ্দেশ্যে বলেন, ‘আমি আপনাদের সবাইকে অনুরোধ করছি বিপথ চালিত ছেলেদের দেশের মূল স্রোতে ফিরে আসতে বলুন। তাঁদের বোঝান, না হলে যার হাতে বন্দুক দেখা যাবে তাকেই মেরে ফেলা হবে।’

তিনি আরও বলেন,
‘জঙ্গিদের পুনর্বাসনবপ্রকল্প চালু আছে রাজ্যে। অস্ত্র ও বিরোধ ছেড়ে যাঁরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছেন, তাঁদের অভিজ্ঞতা নানাভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

জঙ্গিপনায় আকৃষ্ট না হয়ে যুব সম্প্রদায় যাতে স্বাভাবিক জীবন যাপন করে সে উৎসাহ জোগাতে বিভিন্ন খেলাধুলোর ব্যবস্থা করা হয়েছে তাদের জন্য, ফুটবলের জাতীয় লীগে চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে রয়েছে ‘রিয়েল কাশ্মীর ফুটবল ক্লাব’। এই দলের খেলা থাকলে দলকে উৎসাহ দিতে কয়েক হাজার মানুষ মাঠে আসছেন তাদের খেলা দেখতে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে