সৌদিতে ঈদের সময়ে ৫ দিনের কারফিউ

0
106

সৌদিতে ঈদের সময়ে ৫ দিনের কারফিউ

সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় কর্তৃপক্ষ ঈদের সময়েও কঠোর বিধিনিষেধ জারি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে গতকাল (মঙ্গলবার) জানানো হয়েছে, করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে রাখতে এই মাসের শেষ দিকে পাঁচ দিনের ঈদের ছুটিতে দেশব্যাপী কারফিউ জারি করা হবে।

উপসাগরীয় অঞ্চলের মধ্যে করোনাভাইরাসের আক্রমণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সৌদি আরব। করোনারভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশটিকে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে।

সৌদি প্রেস এজেন্সির দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী, ‘২৩ থেকে ২৭ মে পর্যন্ত দেশব্যাপী পুরোপুরি লকডাউন আরোপ করা হবে। পবিত্র রমজান মাস শেষে ঈদ এ সময়ের মধ্যেই পড়ছে’।

দেশটিতে করোনাভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ায় বেশির ভাগ অঞ্চল পূর্ণ লকডাউনের আওতায় চলে গিয়েছিল। গত মাস থেকে সরকার সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত কারফিউ শিথিল করে।

দেশটিতে শপিং মল ও খুচরা বিক্রেতার দোকান খুলে রাখার অনুমতি দেওয়া হলেও মক্কার মতো শহরগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে। কঠোর লকডাউনের মধ্যেও কিছু কিছু জায়গায় সংক্রমণ বাড়ছে।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গতকাল জানিয়েছে, ‘দেশটিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণে ২৬৪ জন মারা গেছেন। করোনায় সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা ৪২ হাজার ৯২৫ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৫ হাজার ২৫৭ জন’।

ইতিমধ্যে মার্চ মাসের ওমরাহ বাতিল করে দিয়েছে সৌদি আরব। চলতি বছরের হজ প্রক্রিয়া চালু করা হবে কি না, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন ঘোষণা দেয়নি কর্তৃপক্ষ।

গত বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রায় ২৫ লাখ মানুষ সৌদি আরবে হজ পালন করতে গিয়েছিলেন।

দেশটিতে প্রাণঘাতীভাইরাসটির প্রকোপ ঠেকাতে সিনেমা, রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেওয়ার পাশাপাশি আকাশপথও বন্ধ রাখা হয়েছে।

বাদশা সালমান সতর্ক করে বলেছেন, ‘কোভিড-১৯–এর বিরুদ্ধে সামনে কঠিন লড়াই করতে হবে। দেশটিকে ভাইরাসের কারণে ব্যবসা–বাণিজ্য বন্ধ ও তেলের দামে ধসের কারণে দুই দিক থেকে ধাক্কা খেতে হতে পারে’।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে