সময় আসেনি মহাবিপদ সংকেত দেয়ার।

0
336

OURBANGLANEWS DESK।

দুর্যোগ ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান জানান এখনো সময় আসেনি ফণী নিয়ে মহাবিপদ সংকেত দেয়ার।

তিনি জানান ৩ মে শুক্রবার সকালে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে প্রাণহানীর আশঙ্কা নেই প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করায়।

তবে আশঙ্কা রয়েছে খুলনা অঞ্চলের ১১ হাজার হেক্টর ধানীজমি এবং সুন্দরবন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার।

দেশের ৪ হাজার ৮০০ টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রকে প্রস্তুত করা হয়েছে ফণীর আশঙ্কায়।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান জানিয়েছেন প্রতি জেলা প্রশাসনে ৪১ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার, ৫ লাখ করে টাকা, ২শ’ টন করে চাল সরবরাহ করা হয়েছে।

তিনি জানান আগামীকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৬ টার মধ্যে আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী খুলনা সাতক্ষীরা অঞ্চলে ফণী আঘাত হানতে পারে।

ঘণ্টায় ৯০ থেকে ১০০ কিলোমিটার হতে পারে বাংলাদেশে থাকাকালীন এর গতিবেগ। তাই তুলনামূলক কম ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা।

এদিকে, বিআইডব্লিউটিসি ফণীর প্রভাবে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত মাওয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে সব ফেরি বন্ধ ঘোষণা করেছে।