‘শিস প্রিয়া’অবন্তী সিঁথি ফিরেছেন সারেগামাপা থেকে।

0
227

OURBANGLANEWS DESK।

ক্লোজআপ ওয়ান বাংলাদেশের ২০১২ সালের প্রতিযোগিতায় সেরা ১০–এ জায়গা করে নেওয়া অবন্তী সিঁথি ২০১৮-২০১৯ সালে ভারতের আয়োজিত,

কলকাতার দূরদর্শন মাধ্যম জি বাংলার অন্যতম সংগীত রিয়েলিটি শো ‘সারেগামাপাতে’ তিনি ছিলেন শেষ ১৪–তে। প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নিয়ে তিনি এখন বাংলাদেশে।

কথায় কথায় হাসতে পছন্দ করা অবন্তী তার দীর্ঘ সাত মাসের সংগীত সফর সম্পর্কে বলেন, আমি সবসময় কিছু শিখতে চাই।

আমি কোন প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে এগোইনা বা যাইনা। সবসময় শিখতে চাই আর এবার ও শিখেছি।

সারেগামাপাতে আমি প্রায় সাত মাস ছিলাম। এই সময়ে গান নিয়ে যতটা জেনেছি বা শিখেছি, এতটা অন্য কোথাও শিখিনি। একটা দারুণ সময় গেছে এত দিন।

অবন্তী নিয়মিত তিন-চারজন প্রশিক্ষকের কাছে সকাল থেকে রাত অবধি গানের চর্চা করাতেন।

তিনি স্পষ্ট করে জানালেন, ‘একটি গান গলায় তুলতে যতটা সময় দিয়েছেন, সেটা যে বৃথা যায়নি।’

সারেগামায় অংশ নিয়ে অবন্তী শিখেছে উচ্চারণ, পরিবেশনা, আত্মবিশ্বাস অর্জন করা, মিউজিক নিয়ে স্বচ্ছ ধারণা এবং মিষ্টি খাওয়া।

এছাড়াও অবন্তী জানান ‘আমার গলাটা আগের চেয়ে বেশ শার্প (তীক্ষ্ণ) হয়েছে। আমি নিজেকে নিজে তো বুঝতে পারি।

আর একটা ব্যাপার ঘটেছে সেটা হলো, মানুষ আমাকে আগে অত বেশি চিনত না। কিন্তু এখন চেনে। বাইরে বের হলে এটা টের পাই।‘

এই চেনাটা অবন্তীর কাজে লাগছে। এখন সে প্রচুর কনসার্টের প্রস্তাব পায়, তবে সব কনসার্টেই রাজি হয়না অবন্তী বেছে, দেখেশুনে তবেই রাজি হয়।

এসব কনসার্টে অনেক অভিজ্ঞতাও হচ্ছে তার। সবশেষ চট্টগ্রামের একটি স্কুলের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে গান গাইতে গিয়ে দেখেন তাঁকে ঘিরে মানুষের উচ্ছ্বাস।

অনেক কিছু করার ইচ্ছা আছে অবন্তীর। সবকিছুই গান নিয়ে। একটা গানের দল করবে সে ইতিমধ্যে গুছিয়ে নিয়েছেন অনেকটা।

গতিশীল করবেন নিজের ইউটিউব চ্যানেলটা। এর মধ্যে প্রস্তুত করেছেন কয়েকটি গান। সেগুলো মুক্তি দেবেন উপলক্ষ বুঝে।

বিয়ের বিষয়টা পরিবারের ওপর ছেড়ে দিয়েছেন অবন্তী।আপাতত সে শুধু গান নিয়ে ভাবছেন তবে পরিবার চাইলে কাল বা পরশুও তার বিয়ে হতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে