লকডাউনে বাসায় নিত্যপ্রয়োজনীয় পন্য পৌঁছে দিবে ঠাকুরগাঁও মেলা ঘর

0
168

লকডাউনে বাসায় নিত্যপ্রয়োজনীয় পন্য পৌছে দিবে ঠাকুরগাঁও মেলা ঘর

মোঃ কাবাতুজ্জামান , কালের সমাচার ।

দিন দিন বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্ত মানুষ। এখন পর্যন্ত ঠাকুরগাঁওয়ে ১৫ জন আক্রান্ত হয়েছে এই করোনা ভাইরাসে,  সেই সাথে চলছে লকডাউন কর্মসুচি। সারাদেশে সাধারণ মানুষ খুব প্রয়োজন ছাড়া বের হচ্ছেন না বাড়ি থেকে। সর্বসাধারণের ঘর থেকে বের হওয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে,  ঔষধ,কাঁচাবাজার ও মুদির দোকান ছাড়া সকল প্রকার দোকানপাট বন্ধ রয়েছে।

এই লকডাউনের কথা মাথা রেখে একদল তরুণ চালু করেছে অনলাইন সেবা। আর তারা এটির নাম দিয়েছেন ঠাকুরগাঁও মেলাঘর।

এই অনলাইন সেবা খুবই অল্প খরচে চাহিদা অনুযায়ি পন্য ও খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিচ্ছে মানুষের বাসা বাড়িতে।এই ব্যতিক্রম উদ্যেগ নিয়েছেন ঠাকুরগাঁও শহরের হাজিপাড়া এলাকার বাসিন্দা তানভির হাসান তানু এবং তার কিছু সহযোগী হিমেল,আশিক,এবং আবু সালেহ। জানা যায়, তারা এই লকডাউনের ঘরবন্দি মানুষের কথা চিন্তা করে এবং মানুষের  দূর্ভোগের কথা মাথায় নিয়ে তারা এই অনলাইন ভিত্তিক দ্রব্য সামগ্রী সেবা চালু করেন। তারা অনলাইনে একটি পেজে সর্ব ধরনের খাবারের ছবি তারা রাখেন এবং তাদের দেওয়া কিছু মোবাইল নাম্বার দেওয়া থাকে সেই নাম্বারে মোবাইল করলে খাবার পৌছে দেওয়া হয় ত্রিশ মিনিটের মধ্যে নির্দিষ্ট ঠিকানায় ।

একই শহরের হাজিপাড়ায় এলাকার বাসিন্দা তাহশিন জানান, লক ডাউনের কারনে তারা বাসা থেকে বের হচ্ছেন না। তিনি ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পারেন এই অনলাইন সেবার কথা তারপর, তিনি নিয়মিত পেজ থেকে খাদ্য দ্রব্য পছন্দ করে উক্ত ঠিকানায় ফোন করছেন এবং ত্রিশ মিনিটের মধ্যে খাবার তার বাড়ির ঠিকানায় পৌছে দেওয়া হয় এবং তিনি আরও জানান দামও আয়ত্তের মধ্যে রয়েছে ।

এই সেবার উদ্যেক্তাদের মধ্যে তানভির হাসান ও হিমেল বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে সকলেই স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে চিন্তিত বাজারগুলোতে এখনোও অনেক মানুষের সমাগম থাকে। এটা আমাদের সবার জন্য ক্ষতিকর, আমরা চাই সবাই সুস্থ থাকুক তাই আমাদের সকলকে বাসায় থাকতে হবে আর এরি কথা ভেবে আমাদের এই অনলাইন সেবা চালু করা।

তিনি আরও জানান,এই সেবা আপাতত জেলা সদরে চালু করা হয়েছে পর্যায়ক্রমে এই সেবা উপজেলাগুলোতে চালু করা হবে। আর এই কর্মসুচিকে ঠাকুরগাঁও সদরের জনসাধারণ সাধুবাদ জানিয়েছেন ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে