বিয়ের প্রলোভন দিয়ে নবম শ্রেনীর ছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষন।

0
215

OURBANGLANEWS DESK।

নবম শ্রেনীর এক শিক্ষার্থীকে প্রেম ও বিয়ের প্রলোভন দিয়ে পর্যাযক্রমে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে।

কিশোরী শিক্ষার্থীর মাতা ৮ মাসের অন্তস্বত্বা হওয়ার অভিযোগে কোতয়ালি মডেল থানায় এক ধর্ষক ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

আসামীরা হচ্ছে, যশোর সদর উপজেলার খোলাডাঙ্গা পশ্চিম পাড়ার মনির উদ্দিনের ছেলে মেহেদী হগাসান ও একই এলাকার ওহিদুর রহমানের ছেলে বিল্লাল (সহযোগী)।

বৃহস্পতিবার কোতয়ালি মডেল থানায় দায়েরকৃত এজাহারে ধর্ষিতা শিক্ষার্থীর মাতা বলেছেন, নবম শ্রেনীতে তার মেয়ে লেখাপড়া করে।

মেহেদী হাসান স্কুলে আসা যাওয়ার প্রাক্কালে প্রেমের প্রস্তাবসহ বিয়ের প্রলোভন দিতো।

গত বছর ১৪ ফেব্রুয়ারী রাত ৮ টায় সহযোগী বিল্লালের সহযোগীতায় মেহেদী হাসান কিশোরীকে ডেকে নিয়ে

খোলাডাঙ্গা পশ্চিম পাড়াস্থ ইসলামের নির্মানাধীন বাড়ীর মধ্যে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। পাহারা দেয় বিল্লাল।

মেহেদী হাসান এভাবে বিভিন্ন সময়ে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে কিশোরীকে ধর্ষন করে আসছিল।

২৪ এপ্রিল বুধবার রাত সাড়ে ৮ টায় মেহেদী হাসান কিশোরীকে খোলাডাঙ্গা আকবর মিয়ার পোল্ট্রি ফার্মের পাশে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন করে।

খোঁজখবর নেওয়ার এক পর্যায়ে কিশোরীর পরিবারের লোকজন উক্তস্থান থেকে কিশোরীকে উদ্ধার করে।

দ্রুত পালিয়ে যায় মেহেদী হাসান ও বিল্লাল। বাড়িতে বিষয়টি ফাঁস করে দেয় কিশোরী।

মামলা দায়ের করা হলে বৃহস্পতিবার কিশোরীর ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন ও আদালতে ২২ ধারার জবানবন্দি গ্রহন করা হয়।