বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন ১৫ থেকে ১৭ ফেব্রুয়ারি।

0
181


কাজী ইমন, OURBANGLANEWS DESK।

বিশ্ব ইজতেমা আয়োজনের তারিখ চূড়ান্ত হয়েছে।
ধর্ম মন্ত্রণালয়ে গত বৃহস্পতিবার ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহর উপস্থিতিতে বিবদমান দুই পক্ষের প্রতিনিধির বৈঠকে ইজতেমার এই তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে আগামী ১৫, ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি এই জামাত আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার এক পর্বেই বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে। কয়েক বছর ধরে দেশের ৬৪ জেলাকে দুই পর্বে ভাগ করে ইজতেমার আয়োজন হয়ে আসছিল।
বৈঠক শেষে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আল্লাহর কাছে শুকরিয়া যে দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতা হওয়ার পর ইজতেমার তারিখ নির্ধারণ করা গেছে। এবার এক পর্বেই টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা হবে। ’ এক পর্বে ইজতেমা করা হলে ভিড় সামাল দিতে সমস্যা হবে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সব কিছু সামাল দেবে। অতীতেও তারা সামাল দিয়েছে। আশা করি কোনো সমস্যা হবে না। ’ তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধ মেটানোর লক্ষ্যে বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে উভয় পক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক হয়।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহর উপস্থিতিতে টানা প্রায় আড়াই ঘণ্টা বৈঠকের পর একসঙ্গে ইজতেমা আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়।

এরপর দুই পক্ষ একে অন্যকে জড়িয়ে ধরে কান্নাকাটি করে। ওই বৈঠক থেকেই ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসে ইজতেমার তারিখ নির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। এ অবস্থায় গতকাল ধর্ম মন্ত্রণালয়ে বৈঠক বসে তারিখ চূড়ান্ত করা হয়।

এ বৈঠকে তাবলিগ জামাতের মাওলানা জুবায়েরুল হাসান, মাওলানা ওমর ফারুক, সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম ও খান শাহাবুদ্দিন নাসিম এবং প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন উপস্থিত ছিলেন।
তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষে প্রকাশ্য দ্বন্দ্ব সৃষ্টির পর পরিস্থিতি মোকাবেলায় ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে গত বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর এক পরিপত্র জারি করা হয়। পরিপত্রে বলা হয়, দেশের জনগণের জানমালের নিরাপত্তা, ধর্মীয় সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতি বজায় রাখা তথা সার্বিক শান্তি-শৃঙ্খলা নিশ্চিতকরণে পাঁচ দফা নির্দেশনা জারি করা হলো।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে