বিশ্বকাপে সর্বনিম্ন ইনিংস।

0
218

OURBANGLANEWS DESK।

সর্বপ্রথম ১৯৭৫ সালে ইংল্যান্ডে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি বা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল আয়োজিত একদিনের ক্রিকেট বিশ্বকাপ মাঠে গড়িয়েছিল।

ক্রিকেটের এ অন্যতম সংস্করণ ১৯৭৫ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত চলে।

এ বছর পঞ্চমবারের মতো এ প্রতিযোগিতা ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। বিশ্বকাপ ক্রিকেটের এ আসরটি দ্বাদশ আয়োজন।

ওয়ানডে বিশ্বকাপের ইতিহাসে দলগত পাঁচটি সর্বনিম্ন স্কোর-

৩৬ রানে কানাডা অলআউট

২০০৩ পার্লে বিশ্বকাপে শ্রীলংকার বিপক্ষে কানাডা মাত্র ৩৬ রানে অলআউট হয়।

বিশ্বকাপ ইতিহাসে যা সবচেয়ে কম রানে কোন দলের অলআউট হওয়া। এটি আজও একটি রেকর্ড।

শ্রীলংকার প্রভাত নিশাংকা ও চামিন্দা ভাস নিয়েছিলেন যথাক্রমে চার ও তিন উইকেট। মাত্র ১৮.৪ ওভারে গুটিয়ে যায় মিনোজ কানাডা।

মাত্র ২৮ বল খেলে শ্রীলংকা টপকে যায় কানাডার ৩৬। শ্রীলংকান অধিনায়ক সনথ জয়সুরিয়ার (৯) একমাত্র উইকেট হারায়।

তৃতীয় ওভারের শেষ বলে তিনি আউট হন।

নামিবিয়া ৪৫ রানে অলআউট

২০০৩ পচেফসট্রুম বিশ্বকাপে প্রথমে ব্যাট করা অস্ট্রেলিয়া ছয় উইকেটে ৩০১ রান করে।

ঝড়ো ব্যাটিং করেন ম্যাথু হেডেন (৮৮), অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস (৫৯) ও ড্যারেন লেম্যান (৫০*)।

নামিবিয়া জবাবে ১৪ ওভারে ৪৫ রানে অলআউট হয়ে যায়। গ্লেন ম্যাকগ্রা একাই নামিবিয়ার ইনিংসে ৭ ওভারে ১৫ রানে সাত উইকেট নেন

৫৮ রানে অলআউট বাংলাদেশ

নিজেদের মাঠ মিরপুরে ৫৮ রানে অলআউট হয়ে বাংলাদেশ বিব্রতকর অবস্থার মুখোমুখি হয়।

ঢাকায় ২০১১ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ছিল ম্যাচটা।

টস জিতে বুমেরাং হয় ব্যাট করার সিদ্ধান্ত। সুলেইমান বেন বাঁ-হাতি ক্যারিবীয় স্পিনার মাত্র ৫.৫ ওভারে ১৮ রানে চার উইকেট নেন।

কেমার রোচ ও ড্যারেন স্যামি নেন তিনটি করে উইকেট।

এক উইকেট হারিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ জিতে যায় ১২.২ ওভারে।

৬৮ রানে স্কটল্যান্ড অলআউট

১৯৯৯ বিশ্বকাপ ম্যাচে স্কটল্যান্ড ৩১.৩ ওভারে ৬৮ রানে অলআউট হয়।

মাত্র সাত রান দিয়েওয়ালশ তিন উইকেট নেন। কার্টলি অ্যামব্রোস, হেন্ডি ব্রায়ান ও রিওন কিং দুটি করে উইকেট নেন।

১০.১ ওভারে লক্ষ্য অতিক্রম করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শিবনারায়ণ চন্দরপল ৩০ করেন ও অধিনায়ক ব্রায়ান লারা ১৭ বলে করেন ২৫ রান। দু’জনই অপরাজিত ছিলেন।