বন্ধ হয়নি সুপ্রভাত বাসের চলাচল।

0
150

মাহিন, OURBANGLANEWS DESK।

মঙ্গলবার সকাল ৭.৩০ টার দিকে যমুনা ফিউচার পার্কের সামনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বাসে উঠার সময় সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাস চাপা দেয় এক শিক্ষার্থীকে।

এই ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী রাস্তা অবরোধ করে। শিক্ষার্থী মৃত্যু ও রাস্তা অবরুদ্ধ হওয়ায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দেখা করে উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ঘোষণা

দিয়েছিলেন নগরে ওই পরিবহনের সব বাস চলাচল বন্ধ। ওই নির্দেশের পরও বন্ধ হয়নি সুপ্রভাত পরিবহনের বাস চলাচল।

মঙ্গলবার বিকেল ও সন্ধ্যায় দেখা যায়নির্দেশের তোয়াক্কা না করে প্রগতি সরণি দিয়ে সুপ্রভাত পরিবহনের বেশ কয়েকটি বাস চলাচল করতে।

ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি ও সুপ্রভাত বাস বন্ধের বিষয়ে একমত পোষন করেছেন।

মঙ্গলবার সকালে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীকে চাপাদিয়ে চলে যায় সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাস। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় আবরারের।

দুপুরের দিকে মেয়র আতিকুল ইসলাম দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে শিক্ষার্থীদের বলেন, ‘সুপ্রভাত পরিবহনের কোনো বাস ওই রুটে চলতে দেওয়া হবে না। এই বাসের রুট পারমিট বাতিল করা হবে। আর দেশের প্রচলিত আইনে বাসচালকের সর্বোচ্চ সাজা নিশ্চিত করা হবে।’

সুপ্রভাত পরিবহনের বাস চলাচল করে গাজীপুর থেকে সদরঘাট পর্যন্ত। প্রগতি সরণির কয়েকজন দোকানি জানান, সকালে দুর্ঘটনার পর শিক্ষার্থীদের

আন্দোলনের কারনে সুপ্রভাত পরিহনের বাস কিছু সময় ওই সড়কে চলাচল না করলেও দুপুর পর থেকে আবার চলতে শুরু করে।

মঙ্গলবার আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সন্ধ্যা ছয়টার দিকে অবরোধ তুলে নেন এবং জানান বুধবার সকাল থেকে আবার বিক্ষোভ হবে এবং দাবি আদায় হওয়ার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে