ফেনীতে জামাইকে শ্বশুরবাড়ি ডেকে পিটিয়ে জখম।

0
170

OURBANGLANEWS DESK।

মো. জাকির হোসেন নামের এক ব্যক্তি অভিযোগ করেছেন শ্বশুরবাড়িতে আদর-আপ্যায়ন দূরে থাক বরং কপালে জুটেছে মারধর।

গত শুক্রবার এ ঘটনা ঘটেছে ফেনীর ফুলগাজীতে। খবর পেয়ে তাঁর আত্মীয়-স্বজনেরা আহত জাকিরকে শ্বশুরবাড়ি থেকে উদ্ধার করে শুক্রবার রাতে ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন ।

মারধরের শিকার জাকির বলেন, তাঁর শ্বশুরবাড়ি উপজেলার জিএমহাট ইউনিয়নের উত্তর শ্রীচন্দ্রপুর গ্রামে।

শুক্রবার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁকে সেখানে ডেকে নিয়ে যান।

সেখানে গেলে তাঁকে তাঁর স্ত্রী, শ্বশুরসহ আত্মীয়-স্বজনেরা পিটিয়ে আহত করেন।

ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাকির আরও বলেন, গত পাঁচ মাস আগে তিনি উপজেলার জিএমহাট ইউনিয়নের উত্তর শ্রীচন্দ্রপুর গ্রামে বিয়ে করেন।

শ্বশুরবাড়ির সবাই মেনে নিলেও বিয়ের পর থেকে স্ত্রী সালমা আক্তারের সঙ্গে তাঁর বনিবনা হচ্ছিল না। তাঁর স্ত্রী গত কয়েক দিন আগে বাবার বাড়িতে যান।

তিনি গত শুক্রবার স্ত্রীকে আনতে যান। জাকির হোসেনকে সেখানে ঘরের দরজা বন্ধ করে তাঁর স্ত্রী, শ্বশুরসহ অন্যরা পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন।

জাকিরের কলেজপরুয়া ছোট ভাই মো. হাসান (১৯) বলেন,

‘খবর পেয়ে তাঁর ভাইকে মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় উদ্ধার করে ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।’

পরে ফেনী সদর হাসপাতালে তাঁকে স্তানান্তর করা হয়।

ফেনী সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) মো.আবু তাহের বলেন, জখমের চিহ্ন রয়েছে আহত জাকিরের শরীরে। তাঁর চিকিৎসা চলছে।

ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি ) মো. কুতুব উদ্দিন বলেন,

‘এ ঘটনার কথা তিনি শোনেননি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে অভিযোগ পেলে।’