প্রথম চিকিৎসকের পর প্রথম কারাবন্দীর মৃত্যু সিলেট বিভাগে

0
269

প্রথম চিকিৎসকের পর প্রথম কারাবন্দীর মৃত্যু সিলেট বিভাগে

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের এক বন্দী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেছেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে মোট ২৩৯ জনের মৃত্যু হলেও এই প্রথম কোনো কারাবন্দীর মৃত্যু হলো। ওই কারাবন্দী হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে গত দুই মাস ধরে কারাগারে ছিলেন।

সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. আনিসুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত রবিবার সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই কারাবন্দীর মৃত্যু হয়। গতকাল সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার পর তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার সূত্রে জানা যায়, ‘করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ওই বন্দীর বাড়ি সিলেটের কানাইঘাট উপজেলায়। গত ৫ মার্চ একটি খুনের মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর গত শুক্রবার তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে কারা কর্তৃপক্ষ তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন’।

তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকায় ওসমানী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন সেন্টারে পাঠান। পরদিন তার নমুনা সংগ্রহ করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। নমুনা সংগ্রহের পরের দিন রবিবার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। আর সোমবার নমুনা পরীক্ষায় তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

কারা সূত্রে জানা গেছে, ‘ওই বন্দী কারাগারের যে ওয়ার্ডে ছিলেন তা গতকাল সোমবার রাতে লকডাউন করা হয়েছে। কারাগারে থাকাকালে কোন কোন বন্দী তার সংস্পর্শে এসেছিলেন তা শনাক্তের চেষ্টা চলছে’।

উল্লেখ্য, সিলেট বিভাগে মোট ২৯৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মোট ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় দেশে প্রথম চিকিৎসকের মৃত্যুও ঘটে এ বিভাগে।

গত ১৫ এপ্রিল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিন ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে