নীল দিগন্ত মানব কল্যান সংস্থা’এর জেলা ভিত্তিক উপহার বিতরণ “আমরা মিলেই বাংলাদেশ”

0
195

নীল দিগন্ত মানব কল্যান সংস্থা’এর জেলা ভিত্তিক উপহার বিতরণ “আমরা মিলেই বাংলাদেশ”

গত ৮ ই মার্চ বাংলাদেশে সর্বপ্রথম প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ১৩ই মার্চ পর্যন্ত আক্রন্তের সংখ্যা কিছুটা কম থাকলেও ১৪ই মার্চ থেকে আবার করোনা রোগী শনাক্ত হতে থাকে। এরপর সরকারের পক্ষ থেকে প্রথম দফায় ১৭ই মার্চ থেকে ৩১ই মার্চ পর্যন্ত স্কুল, কলেজসহ সব ধরণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়।

এরপর পরিস্থিতি খারাপ হতে থাকায় প্রথম দফার সাধারণ ছুটি ৯ই এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। এরপর দফায় দফায় সাধারণ ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হয়। সর্বশেষ সাধারন ছুটি বাড়িয়ে আগামী ৫ই করা হয়।

দফায় দফায় সাধারন ছুটি বাড়ানো ও দেশের বিভিন্ন এলাকা লক-ডাউন ঘোষণা করার কারণে লক্ষ লক্ষ মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েন। সরকারের পক্ষ থেকে কর্মহীন মানুষদের জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় খাবারের ব্যাবস্থা করা হয়। সরকারের পাশাপাশি অনেকে ব্যাক্তিগত উদ্যোগেও এসব কর্মহীন মানুষদের পাশে দাঁড়ান।
তেমনি একটি প্রতিষ্ঠান ‘নীল দিগন্ত মানব কল্যান সংস্থা’। ‘নীল দিগন্ত মানব কল্যান সংস্থা’ এর উদ্যোগে  ‘আমরা মিলেই বাংলাদেশ’ কার্যক্রমের আওতায় কর্মহীন খেটে খাওয়া মানুষদের সাহায্য করার জন্য এগিয়ে আসেন। সংস্থাটি প্রথম ধাপে ২ জেলার কর্মহীন খেটে খাওয়া মানুষদের সাহায্য করবে।

সংস্থাটি আজকে গোপালগঞ্জের গ্রামাঞ্চলের ১০০ টি পরিবারকে উপহার সামগ্রী দিয়ে সাহায্য করেছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক পর্শিয়া সুলতানা, জেলা সমাজ সেবা অফিসার সমির মল্লিক, সদর থানা সমাজ সেবা অফিসার সুলতানা জাহিদ পারভিন এবং আরও অন্যান্য। এরই ধারাবাহিকতায় কাল বাগেরহাট জেলার গ্রামাঞ্চলের ৫০ টি পরিবারকে উপহার সামগ্রী দিয়ে সাহায্য করবে।

সংস্থাটির একজন পরিচালক জানান , “আমাদের ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা, জেলা ভিত্তিক শহরাঞ্চল, গ্রামঞ্চলে নিম্ন মধ্যবিত্ত, কৃষি নির্ভর সংসারের মানুষেরা যারা কারো কাছে চাইতে পারে না, তাদের সাহায্য করা। এ কর্মসূচির আওত্তায় আমরা কর্মহীন মানুষদের বাড়ির সামনে উপহার সামগ্রী রেখে আসবো। আমাদের প্রথম চেষ্টায় ২টি জেলার মানুষের মাঝে উপহার বিতরণ করা । তার মধ্যে একটি আজ শেষ করলাম । আমাদের প্র‍য়াস থাকবে আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী বাংলাদেশের সব জেলায় এমন অন্তত ৫ টি পরিবারকে সাহায্যে করা। ”
তিনি আরও বলেন, আসুন সবাই নিজের জায়গা থেকে সামর্থ্য অনুযায়ী একে অন্যের সাহায্যে এগিয়ে আসি। একজনও কষ্টে থাকলে কষ্টে থাকবে বাংলাদেশ। কারন আমরা সবাই মিলেই বাংলাদেশ।

আপনার অল্প চেষ্টায় হতে পারে একটা পরিবারের জন্য খাদ্য উপহার। ‘নীল দিগন্ত মানব কল্যান সংস্থার’ মাধ্যমে খেটে খাওয়া অসহায় মানুষদের সাহায্য করতে চাইলে ‘নীল দিগন্ত মানব কল্যান সংস্থার’ সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করতেও তিনি আহবান জানান ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে