দুদকের মুখোমুখি বশেমুরবিপ্রবির সাবেক ভিসি ।

0
148

কালের সমাচার ডেস্ক ।

 

শিক্ষার্থীদের তীব্র আন্দোলনের মুখে গত ৩০ অক্টোবর পদত্যাগ করেন গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য খন্দকার নাসির উদ্দিন।

তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার বিষয়ে অধিকাংশ অভিযোগের সত্যতা পায় বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) তদন্ত কমিটি।

তাঁকে উপাচার্যের পদ থেকে প্রত্যাহারের সুপারিশ করে ওই কমিটি।

 

পদত্যাগ করার পর এখন তাকে পরতে হলো দুদকের মুখে।খন্দকার নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

তাঁর বিরুদ্ধে ঘুষ, অনিয়ম, নিয়োগ–বাণিজ্য, কেনাকাটায় দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগ খতিয়ে দেখবে সংস্থাটি।

দুদক সূত্র জানায়, পরিচালক শেখ মোহাম্মদ ফানাফিল্ল্যাহকে অনুসন্ধান কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সূত্র আরও জানায়,শিগগিরই সাবেক ওই উপাচার্যকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হবে।

সুনির্দিষ্ট তথ্য পেয়ে তাঁর বিরুদ্ধে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ইতিমধ্যে প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহ করেছে দুদক।

উল্লেক্ষ্য যে, বেশ কিছুদিন ধরে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্ব পালন করে যাওয়া উপাচার্যের বিরুদ্ধে একের পর এক বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা কাজে আর্থিক অনিয়ম, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের দমিয়ে রাখতে বহিষ্কার, অশোভন আচরণ, অভিযোগ ওঠে। এমন পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে গত ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে টানা আন্দোলন নামেন। আন্দোলনের মুখে ৩০ অক্টোবর পদত্যাগ করেন উপাচার্য।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে