ট্রাকের ধাক্কায় মৃত্যু।

0
297

OURBANGLANEWS DESK।

চলন্ত ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কায় নওগাঁ সাপাহারে বেসরকারি সংস্থা কারিতাসের জুনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার মোটর সাইকেল চালক নাজমুস সাহাদাৎ (৪৫) নিহত হয়েছে।

মোটর সাইকেলের অপর আরোহী মাঠ কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলাম (৪২) গুরুতর আহত হয়েছে।

গত শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে এই মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে সাপাহার টু পোরশা পাকা সড়কের খোট্রারাপাড়া ভেড়াকুড়ি ব্রিজের কাছে।

সড়ক দুর্ঘটনায় ভাগ্যেক্রমে প্রাণে বেঁচে যাওয়া এনজিও কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলাম জানান,

“রাজশাহী অঞ্চলের বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কারিতাসের অঞ্চলিক জুনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার নাজমুস সাহাদাৎ ও

তিনি মোটরসাইকেল যোগে সাপাহার অফিস পরির্দশনে আসার পথে খোট্রারাপাড়া ভেড়াকুড়ী ব্রীজের নিকট পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে মালবাহী ৩/৪টি ট্রাক দ্রুতবেগে তাদের অতিক্রম করতে থাকে”।

মোটরসাইকেল চালক প্রোগ্রাম অফিসার নাজমুস সাহাদাৎ এ সময় তার মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন।

চলন্ত মোটরসাইকেলটি তাৎক্ষণিক ট্রাকের চাকার সঙ্গে প্রচণ্ড জোরে ধাক্কা লেগে রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে।

ঘটনাস্থলে ছুটে এসে স্থানীয় লোকজন তাদের দুইজনকে রক্তাক্ত ও গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক সাপাহার উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে আসে।

কর্তব্যরত চিকিৎসকরা এ সময় এনজিও কর্মকর্তা নাজমুস সাহাদাৎকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে,

রাজশাহী জেলার বালিয়া এলাকার মোজাম্মেল হকের ছেলে নিহত এনজিও কর্মকর্তা নাজমুস সাহাদাৎ

ও রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌর এলাকার আফছার আলীর ছেলে আহত মাঠ কর্মকর্তা আশরাফুল ইসলাম।

এখন পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। সাপাহার হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রয়েছে নিহত এনজিও কর্মকর্তার লাশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসুল আলম শাহ।