জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নামে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীনবরনে নেই বঙ্গবন্ধুর ছবি, ফেসবুকে সমালোচনার ঝড়।

0
403

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নামে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীনবরনে নেই বঙ্গবন্ধুর ছবি, ফেসবুকে সমালোচনার ঝড়।

জান্নাতুন নাইম, গোপালগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি :

মুজিববর্ষের শুরুতে আয়োজিত গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের নবাগত ছাত্র-ছাত্রীদের নবীনবরণ অনুষ্ঠানের ব্যানারে রাখা হয়নি বঙ্গবন্ধুর ছবি। ১ জানুয়ারি ২০২০ তারিখ সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে অনুষ্ঠিত নবীনবরণে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান এবং প্রধান অতিথি ছিলেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ ছাদেকুল আরেফিন।

নবীনবরণের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ছবি না থাকায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুলেছেন অনেকেই। কর্মচারীদের একাংশকে অনুষ্ঠান বয়কট করতে দেখা গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী নওরীন আফরোজ এনি লিখেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ, এই বিশ্ববিদ্যালয় নবীন বরণ ২০২০ সনে অনুষ্ঠানের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ছবি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো নাই, এটা গোপালগঞ্জের মাটিতে কিসের আলামত। বঙ্গবন্ধুর নামের বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধুর ছবি নাই ব্যনারে……… জাতির কাছে প্রশ্ন??????’

গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের নেতা নিউটন মোল্লা লিখেছেন,  ‘জাতির জনকের পূর্নভূমি গোপালগঞ্জে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীন বরণ অনুষ্ঠানে যিনি থাকবেন সব রাজনীতির উর্ধে সেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি নেই, দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি নেই। গোপালগঞ্জের মাটি ও মানুষের নেতা জননেতা জনাব শেখ ফজলুল করিম সেলিম ভাইয়ের ছবি নেই
এতো বড় দুঃসাহস কে বা কাহারা দেখালো তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্হা গ্রহণ করার জোর দাবি জানাই।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র রাসেল মুন্সি লিখেছেন, ‘মুজিববর্ষে বঙ্গবন্ধুর নামাঙ্কিত বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীনবরনে নেই বঙ্গবন্ধুর ছবি-নেপথ্যে বামপন্থী শিক্ষকদের ষড়যন্ত্র। সারা বিশ্ব যেখানে জাতিসংঘের মাধ্যমে মুজিব বর্ষ পালনের জন্য একত্রিত হচ্ছে সেখানে গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর নামাঙ্কিত বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীনবরনের ব্যানারে নেই বঙ্গবন্ধুর ছবি।

আমাদের ভিসি স্যার আপনি কিভাবে এই ব্যানার এপ্রোভ করে এই ব্যানারের নিচে প্রগ্রাম করলেন? আপনি নাকি আবার বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি,আপনার মধ্যে বিন্দুমাত্র বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থাকলে আপনি এটা করতে পারতেন না। আপনার ছত্রছায়ায় বামপন্থী কিছু শিক্ষক দিনের পর দিন এই অপকর্ম গুলো করে যাচ্ছে।আপনি যদি বামদের সাথে বিলিন হতে চান তাহলে মুখোশ খুলে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করুন। আর ক্যাম্পাসে যদি ছাত্রলীগ অথবা আওয়ামীপন্থি শিক্ষক কর্মকর্তা কর্মচারী কেও থেকে থাকেন তাহলে আদর্শকে টাকায় বিক্রি না করে এই ঘটনার প্রকাশ্য প্রতিবাদ করে নিজেদের অবস্থান জানান দিন।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে