ঘরে বসে সহজ উপায়ে মুছে ফেলতে পারেন ব্রোন, মেছেতার দাগ!

0
418

OURBANGLANEWS DESK।

বেশির ভাগ মানুষই নিজের মুখ নিয়ে সবচেয়ে বেশি সচেতন। মুখের সৌন্দর্য ধরে রাখতে নিয়মিত তার ত্বকের সঠিক যত্ন নেওয়া অত্যন্ত জরুরি।

আপনিও কি মুখের দাগ নিয়ে খুব চিন্তিত? কিন্তু এই সব দাগ কী ভাবে দূর হবে সেটাও বুঝে উঠতে পারছেন না! বাজারের নানা রকম ক্রিম, লোশন ব্যবহার করেও ফল মিলছে না?

আসুন জেনে নেওয়া যাক কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি, যেগুলি কাজে লাগিয়ে অনায়াসে মুছে ফেলতে পারবেন মুখের দাগ-ছোপ।

• ব্রোনর দাগ দূর করতে:
১) চন্দন গুঁড়োর সঙ্গে একটু গোলাপজল মিশিয়ে মুখে লাগান। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

২) শুধু মধুও প্রতিদিন মুখের দাগের উপরে লাগাতে পারেন। এতে করে দাগ কমে আসবে। তবে খেয়াল রাখবেন আপনার ত্বকে মধুর ব্যবহারে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হচ্ছে কিনা।

৩) তৈলাক্ত ও সাধারণ ত্বকে শশার রস, আলুর রস দিয়ে দশ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এই রস ব্যবহার করতে পারেন।

৪) শুধুমাত্র তৈলাক্ত ত্বকে টক দই, লেবুর রস ও আটা মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। সপ্তাহে দুই দিন এটি ব্যবহার করুন।

৫) অ্যালেভেরার রস প্রতিদিন দাগের জায়গায় লাগালে দ্রুত দাগ কমে যাবে।

৬) তৈলাক্ত ত্বকে মুলতানির মাটি, লেবুর রস ও টকদই মিশিয়ে ব্যবহার করুন। এতে উজ্জ্বলতা বাড়বে, দাগও কমবে।

৭) যে কোনও ত্বকের দাগ কমাতে পাকা কলার পেস্ট ব্যবহার করতে পারেন।
৮) রসুন ও লবঙ্গের মিশ্রণ করে প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে লাগিয়ে নিন। সকালে উঠে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৯) টমেটোর রস মুখে লাগিয়ে ১০-১৫ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন। এতেও দাগ দূর হয়।
১০) কাঁচা হলুদ ও মধুর মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন।

• রোদে পোড়া বা মেছেতার দাগ দূর করতে:
১) নিয়মিত লেবুর রস মুখে দিতে পারেন।
২) গুঁড়ো দুধ ও গ্লিসারিন মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

৩) অ্যালেভেরা জেল ও আলুর পেস্ট নিয়মিত মুখে লাগাতে পারেন।
৪) কমলা লেবুর খোসা গুঁড়ো করে তার সঙ্গে দুধ মিশিয়ে নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন। দ্রুত ফল পাবেন।

৫) মেছেতার জায়গায় লেবুর রস, সামান্য ভিনেগার ব্যবহার করা যেতে পারে। চাইলে এর সঙ্গে অল্প পরিমাণে পানি মিশিয়ে নিতে পারেন।
৬) লেবুর রস, মধু ও কাচা পেঁপে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। দাগ কমাতে এটি ব্যবহার করতে পারেন। উপকার পাবেন।

তবে বেশি দাগ হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

তা ছাড়া আপনার ত্বকের উপযোগী উপাদান ব্যবহার করা জরুরি। কোনও প্রসাধন সামগ্রী কেনার আগে ভাল করে জেনে নিন।


একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে