করোনা ভ্যাকসিন নাও বের হতে পারে : বরিস জনসন

0
181

করোনা ভ্যাকসিন নাও বের হতে পারে : বরিস জনসন

করোনাভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। এখন পর্যন্ত বিজ্ঞানীরা কোন ভ্যাকসিন বের করতে পারেননি। এরই মধ্যে প্রানঘাতী এই ভাইরাস নিয়ে আরও আতঙ্কের ইঙ্গিত দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিনি বলেছেন, করোনাভাইরাসের কোনও ভ্যাকসিন নাও বের হতে পারে।

বরিস জনসন নিজেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। মাস খানেক আগেই তিনি সুস্থ হয়ে কাজে যোগ দিয়েছেন।

তাঁর এই বক্তব্য বেশ বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। কোনও রাষ্ট্রনেতা এভাবে কীভাবে বলতে পারেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

বরিস জনসন সতর্ক করে বলেছেন, সুস্থ থাকতে হলে নিজেকে সাবধান থাকতে হবে। কারণ করোনাভাইরাসের টিকা আদৌ বেরোবে কিনা, সে বিষয়ে সন্দেহ রয়েছে। জনসন দাবি করেন গোটা বিশ্বের পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে এগোচ্ছে।

ইংল্যান্ড সরকার এই ইস্যুতে ৫০ পাতার একটি গাইডলাইন প্রকাশ করেছে। গাইডলাইনটিতে করোনার হাত থেকে বাঁচার উপায় ও ধাপে ধাপে কীভাবে লকডাউন তুলে নেওয়া যায়, সে বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। এছাড়া করোনা পরবর্তীতে যাতে অর্থনীতিতে কোন প্রভাব না পড়ে, সেদিকে নজর দিতে বলেছেন বরিস জনসন।

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি হতে এক বছরেরও বেশি সময় লাগবে অথবা কখনও নাও বের হতে পারে, এমন সম্ভাবনার কথাও জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। সুতরাং ব্রিটেন কীভাবে নিজেকে রক্ষা করতে পারে, তার খসড়া তৈরি করা প্রয়োজন বলে মনে করেন জনসন।

এর আগে, একই কথা শুনিয়েছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছিল, ‘করোনার ভ্যাকসিন কোনওদিন নাও বেরোতে পারে। এমন তথ্য দেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ডঃ ডেভিড নাবারো’।

সিএনএন-কে দেওয়া সাক্ষাতকারে নাবারো বলেন করোনাভাইরাস এমন এক ভাইরাস, যার ভ্যাকসিন না বেরোনোর আশঙ্কা রয়েছে। তিনি আরও বলেন, বিশ্বে এমন অনেক ভাইরাস আছে, যার ভ্যাকসিন বানানো সম্ভব হয়নি।

তাই করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন যে তৈরি হবেই, একথা জোর দিয়ে বলা যাচ্ছে না। যতক্ষণ না করোনাভাইরাস প্রতিরোধকারী ভ্যাকসিনটি সবধরণের পরীক্ষা ও সতর্কতামূলক বিধি উতরে যাচ্ছে, ততক্ষণ সেটি ব্যবহারের যোগ্য নয় বলেই মনে করছেন নাবারো।

(সূত্র: কোলকাতা টুয়েন্টিফোর)

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে