করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিনামূল্যে পিপিই বিতরণ করবে ওয়ালটন গ্রুপ

0
336

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিনামূল্যে পিপিই বিতরণ করবে ওয়ালটন গ্রুপ

দেশের এই অবস্থায় এগিয়ে আসছে ওয়ালটন গ্রুপ। তারা বিনা মূল্যে পিপিই বিতরণ  করার উদ্যোগ নিয়েছেন।

এব্যাপারে ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক এস.এম জাহিদ হাসান তার সোস্যাল মিডিয়া (ফেসবুক) বার্তায় বলেন :

“আসসালামু আলাইকুম।
রানা প্লাজা ট্রাজেডির কথা নিশ্চয়ই মনে আছে। যারা কাছ থেকে দেখেছেন, একমাত্র তারাই জানেন দেশীয় কোম্পানি ওয়ালটন গ্রুপ দেশের প্রয়োজনে, দশের প্রয়োজনে, দেশের মানুষের প্রয়োজনে সবার আগে কিভাবে এগিয়ে আসে। বিদ্ধস্ত রানা প্লাজায় খাবার সরবরাহ, উদ্ধার কাজে উন্নতমানের ইক্যুয়েপমেন্টস সরবরাহ সহ, শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সাহসী উদ্ধারকর্মী দিয়ে সহযোগীতা করে ওয়ালটন সবার প্রশংসা কুড়িয়েছিল। বিগত দিনগুলোতেও বন্যা, দুর্যোগ সহ দল মত নির্বিশেষে বাংলাদেশের প্রতিটি সংকটময় মুহুর্তে ওয়ালটন সাধারণ মানুষ এবং সরকারের পাশে দাড়িয়েছে।

ইনশাল্লাহ, এইবারও করোনা ভাইরাস ইস্যুতে দেশের এই ক্লান্তিকালে ওয়ালটন গ্রুপ দেশের সরকারী, বেসরকারী সংগঠনগুলোর সাথে কাজ করছে ওয়ালটন। করনো ভাইরাস প্রতিরোধ ও প্রতিকার নিয়ে আমরা কি কি করছি সেগুলো সংক্ষিপ্ত আকারে তুলে ধরছি। আমরা ওয়ালটনের সুসংগঠিত আন্তর্জাতিক সাপ্লাই চেইন ব্যবহার করে নিম্নলিখিত পণ্যগুলো জরুরী ভিত্তিতে আমদানির ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।
১. ফুল পিপিই
২. ফেস মাস্ক
৩. সুরক্ষা চশমা
৪. গ্লোভস
৫. সু-কাভার
৬. প্রটেকটিভ ক্যাপ
৭. হ্যান্ডহেল্ড থার্মোমিটার
এগুলো বিমানযোগে দ্রুত আনার উদ্যোগ নিয়েছি আমরা। যা পরবর্তীতে সরকারী, বেসরকারী সহায়তায় বিনামূল্যে বিতরন করা হবে। নিজেদের ফ্যাক্ট্ররিতে প্রচুর হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে বিনামূল্যে বিতরণ করছি। এছাড়াও সরকারকে আর কি কি ক্ষেত্রে আমরা সহায়তা করতে পারি সেজন্য সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরগুলোকে চিঠি দিয়েছে ওয়ালটন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুমতি সাপেক্ষে ভেন্টিলেশন সিস্টেম ও প্রয়োজনীয় মেডিসিন আমদানী করবে ওয়ালটন। যেসমস্ত সংগঠন ভাইরাস প্রতিরোধে কাজ করছে তাদের সাথে কাজ করার উদ্যোগ নিয়েছে ওয়ালটন এবং ইতিমধ্যে কাজ শুরুও হয়ে গেছে। আরো উল্লেখ থাকে যে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খবর প্রচারের পরপরই ওয়ালটনের পঞ্চাশোর্ধ কর্মীদের বাধ্যতামূলক বাড়ি থেকে কাজ করতে বলা হয়েছিলো। পরিস্থিতি জটিল হওয়ায় বর্তমানে বেশিরভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বাড়ি থেকে কাজ করার অনুমতি প্রদান ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আর যারা জরুরী সেবায় নিয়োজিত আছেন তাদের পর্যাপ্ত সুরক্ষা সরঞ্জাম সরবরাহ করা হয়েছে। দরিদ্র ঘরবন্দী মানুষদের খাবার দেয়ার জন্য বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনকে দশ লক্ষ টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়েছে| ইতিমধ্যে সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক অফিস ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে| এছাড়াও স্থানীয় ভিত্তিতে ওয়ালটন প্লাজা ও ডিলার ডিস্ট্রিবিউটর গণ Covid19 নিয়ন্ত্রনে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে|
আসুন আমরা সবাই মিলে দেশের এই বিপদের দিনে একসাথে কাজ করি। দেশের মানুষের সাথে ওয়ালটন ছিলো, আছে, থাকবে।
ইনশাআল্লাহ। “

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে