করোনাভাইরাসের ১০০তম দিন

0
219

করোনাভাইরাসের ১০০তম দিন 

আজ থেকে ১০০ দিন আগে চীনে একজনের শরীরে বর্তমান বিশ্বের প্রধান আতংক “করোনাভাইরাস” প্রথম শনাক্ত হয়। সেখান থেকেই পর্যায়ক্রমে থাইল্যান্ড ফিলিপাইনসহ এশিয়া,ইউরোপ,আমেরিকাসহ গোটা বিশ্বকে ভীতিকর পরিস্থিতির মুখে ঠেলে দেয় এক মহামারী রুপ নিয়ে।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাস জাতের মধ্যে সপ্তম হিসেবে আবির্ভূত ভাইরাসটির নাম রাখে ‘কোভিড-১৯’।ইতিমধ্যে এই ভাইরাসটি এখন পর্যন্ত বিশ্বের প্রায় ১৫ লাখ মানুষকে আক্রান্ত ও ৯৩ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।
এমন পরিস্থিতির মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক তেদরোস আধনম গেবরেয়েসিস আজ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আফ্রিকান মিশনের এক বৈঠকের প্রারম্ভিক বক্তব্যে করোনাভাইরাসের কারণে অপেক্ষাকৃত নিম্ন আয়ের ও দরিদ্র দেশগুলোর জন্য সামনে আরো কঠিন সময় আসতে পারে বলে আবারো হুঁশিয়ারি দিয়েছে।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক বলেন, ভাইরাসটি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে বিপর্যস্ত করার সাথে সাথে বৈশ্বিক অর্থনীতির প্রগতি ব্যাহত করেছে এবং ব্যাপক সামাজিক ব্যাঘাত ঘটাচ্ছে। এই ভাইরাসটিতে মৃত্যুর হার ইনফ্লুয়েঞ্জার চেয়ে ১০ গুণ বেশি বলে অনুমান করা হয়।
তেদরোস বলেন, আঞ্চলিক এবং জাতীয় পর্যায়ে ভাইরাস ধারণ করার পর অনেক দেশের স্বাভাবিক সব কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আফ্রিকাতে সংক্রমণের সংখ্যা এখন তুলনামূলকভাবে কম।
বক্তব্যের সময় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে নতুন পাঁচটি সম্পূরক কর্মকৌশল ঘোষণা করেন। এই পাঁচটি কৌশলের উদ্দেশ্যে হচ্ছে-
প্রথমত, প্রস্তুত এবং প্রতিক্রিয়া জানাতে তাদের সক্ষমতা তৈরিতে দেশগুলিকে সমর্থন করা।
দ্বিতীয়ত, মহামারি বিজ্ঞান বিশ্লেষণ এবং ঝুঁকিপূর্ণ যোগাযোগ সরবরাহ করা।
তৃতীয়ত, বিশ্ব সরবরাহ শৃঙ্খলা সমন্বয় করা।
চতুর্থত, প্রযুক্তিগত দক্ষতা প্রদান এবং স্বাস্থ্য কর্মীদের সংহতকরণ।
এবং পঞ্চম, গবেষণা, উদ্ভাবন এবং জ্ঞান ভাগাভাগি ত্বরান্বিত করার।
বিক্ষিপ্তভাবে আক্রান্ত দের খুঁজে বের করা এবং একই জায়গায় বেশিসংখ্যক আক্রান্ত বলে চিহ্নিত বিশেষ এলাকাগুলো নিয়ন্ত্রণ করা এবং সমাজে সংক্রমণ রোধ করতে হবে। সমাজে সংক্রমণ যেখানে ঘটছে সেখানে দমন করা, উপযুক্ত যত্নের মাধ্যমে মৃত্যুহার হ্রাস এবং নিরাপদ এবং কার্যকর ভ্যাকসিন এবং চিকিৎসা আবিষ্কার করতে হবে।
সময় এই কৌশলগত উদ্দেশ্যগুলি প্রতিটি ক্ষেত্রে সন্ধান, পরীক্ষা, বিচ্ছিন্নকরণ এবং যত্নের জন্য উপযুক্ত জাতীয় কৌশলগুলি দ্বারা সমর্থন করা উচিত এবং প্রতিটি সূত্র সন্ধান করতে হবে বলে বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে