উত্তরায় এসি বিস্ফোরণে দগ্ধ স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু।

0
163

মাহিন, OURBANGLANEWS DESK।

শীতাতপনিয়ন্ত্রণ যন্ত্র (এসি) বিস্ফোরণের ঘটনায় রাজধানী উত্তরায় দগ্ধ হয়ে মারা যান স্বামী ও স্ত্রী। প্রথমে স্বামী আলমগীর ভূঁইয়া (৫৫) ও পরে তাঁর স্ত্রী বিলকিস ফারজানা (৪৮)।

গতকাল ২৫ মার্চ সোমবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বিলকিস ফারজানা।

বিমানবন্দর থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ছিলেন আলমগীর ভূঁইয়া এবং উত্তরা পশ্চিম থানার মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাঁর স্ত্রী বিলকিস ফারজানা।

আলমগীর ভূঁইয়া স্বপরিবার বসবাস করতেন উত্তরার ৩ নম্বর সেক্টরের ১৮ নম্বর সড়কের ৪১ নম্বর বাড়িতে। তারা থাকতেন ছয়তলা ভবনটির পঞ্চম তলার ফ্ল্যাটে।

১৮ মার্চ এই ফ্ল্যাটের একটি এসি বিস্ফোরিত হয়, দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে। ওই সময় ফ্লাটটির একটি কক্ষে ঘুমিয়েছিলেন আলমগীর হোসেন ও বিলকিস ফারজানা এবং অন্য কক্ষে তাঁদের সন্তানেরা।

ফায়ার সার্ভিস খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট আগুন নেভায়। আলমগীর ও বিলকিস এ সময় বাথরুমে গিয়ে নিজেরাই পানি ঢালেন শরীরে।

পরে তাঁদের উদ্ধার করে পাশের বাসার লোকজন নিয়ে যান স্থানীয় একটি হাসপাতালে। সেখান থেকে তাঁদের ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে ভোর চারটার দিকে আনা হয়।

পার্থ শংকর পাল বার্ন ইউনিটের আবাসিক সার্জন জানিয়েছিলেন, আলমগীর ও বিলকিস দুজনেরই ৯৫ শতাংশ শরীর দগ্ধ হয়েছিল।

আলমগীর হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) গত রোববার ২৪ মার্চ দুপুরে এবং বিলকিস নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) সোমবার ২৫ মার্চ দুপুরে মারা যান।

বাচ্চু মিয়া, ঢাকা মেডিকেল ফাঁড়ির পরিদর্শক জানিয়েছেন, পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বিলকিস ফারজানার লাশ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে