ঈদে পোষাক দিতে না পারায় ২ সন্তানকে নিয়ে মায়ের বিষপানে আত্মহত্যা।

0
321


OURBANGLANEWS DESK।

যশোরের শার্শা উপজেলার ছেলে-মেয়েকে বিষপান করিয়ে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন হামিদা খাতুন নামে দুই সন্তানের মা।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের শ্বশুর ও শাশুড়িকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

সোমবার (২৭ মে) সকাল ৭টায় শার্শার চালিতাবাড়ীয়া গ্রাম থেকে শার্শার বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সদস্যরা তাদের মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহতরা হলেন-চালিতাবাড়িয়া গ্রামের ইব্রাহিমের স্ত্রী হামিদা খাতুন (৩৫), তার মেয়ে শরিফা খাতুন (১১) শিশুপুত্র সোহান হোসেন (৪)।

প্রাথমিক অবস্থায় আত্মহত্যার প্রকৃত কারণ জানা না গেলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের থেকে জানা গেছে শাশুড়ির নির্যাতন থেকে মুক্তি পেতে এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।

কায়বা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসান ফিরোজ টিংকু জানান, তার জানা মতে গৃহবধূ হামিদা খুব ভাল ছিলেন। কিন্তু তার শাশুড়ির একটু অন্যরকম ছিলেন।

তার শাশুড়ির কাছে প্রায়ই বাইরের মানুষ যাতায়াত করতেন। এতে হামিদা বাধা দিতেন।

এ কারণে শাশুড়ি বিভিন্ন ভাবে বৌমাকে নির্যাতন করতেন।

অবশেষে তার নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পেতে তিনি তার ছেলে-মেয়েদের সঙ্গে নিয়ে বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। অপরাধীদের সাজা হওয়া প্রয়োজন।

বাগআঁচড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সুকদেব জানান, এ ঘটনায় শ্বশুর ও শাশুড়িকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে বলেও জানান তিনি।