ওয়াহেদ ম্যানশনের দুই মালিককে আদালতের কারাগারে প্রেরণ।

0
180

মাহিন, OURBANGLANEWS DESK।

আদালত কারাগারে পাঠিয়েছেন ওয়াহেদ ম্যানশনের দুই মালিক সোহেল ওরফে শহীদ ও হাসানকে পুরান ঢাকার চকবাজারে চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ডে হতাহত হওয়ার ঘটনার মামলায়।

এই আদেশ দেন ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলাম মঙ্গলবার ০২ মার্চ।

এর আগে আদালতে আত্মসমর্পণ করে মামলার দুই আসামি আবেদন করেন জামিনের। জামিনের বিরোধিতা করা হয় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে।

বলা হয়, মূলত ভবনটি আবাসিক। আবাসিক এলাকায় প্রাণহানি হওয়ার আশঙ্কা থাকে আবাসিক ভবনকে গুদাম হিসেবে ব্যবহার করলে। তা জানার পরও ভাড়া দেওয়া হয় গুদাম।

অসাবধানতা ও আইনি পরিপন্থী কাজ করেছেন গুদাম হিসেবে ভাড়া দেওয়ায় ক্ষেত্রে। এর ফলে আগুনে মারা গেছেন ৭০ জন লোক।

আরও আহত হয়েছেন বহু লোক। অন্যদিকে, আদালতে আসামিপক্ষ দাবি করে, জড়িত নন চুড়িহাট্টার আগুনের সঙ্গে। কোনো অবহেলা আসামিরা করেননি।

তাঁরা নিঃস্ব হয়ে গেছেন ভবনে আগুন লাগায়। আগুন লাগাননি আসামিরা। মারা যেতে পারতেন তাঁরা নিজেরাই।

আদালত আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন উভয়পক্ষের বক্তব্য শুনে। গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে ৭০ জন মারা যান পুরান ঢাকার চুড়িহাট্টার ওয়াহেদ ম্যানশন ও এর আশপাশের ভবনে আগুন লেগে।

আহত হন বহু লোক। এ ঘটনায় ২১ ফেব্রুয়ারি আগুনে পুড়ে নিহত জুম্মনের ছেলে আসিফ বাদী হয়ে মামলা করেন চকবাজার থানায়।

মামলায় উল্লেখ করেন ওয়াহেদ ম্যানশনের মালিক আব্দুল ওয়াহেদের ছেলে হাসান ও সোহেলের নাম। আসামি করা হয় অজ্ঞাত আরও ১০ থেকে ১২ জনকে।

গত ১৩ মার্চ মামলার আসামি সোহেল ও হাসান জামিন পান উচ্চ আদালত থেকে। তিন সপ্তাহের জামিন দিয়ে উচ্চ আদালত আসামিদের নির্দেশ দেন বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করার।

পুলিশ আদালতকে বলেছে, প্রাইভেট কারসহ বিভিন্ন যানবাহন আগুনে পুড়ে গেছে ৭০ জনের প্রাণহানি ছাড়াও। এতে আর্থিক ক্ষতি হয়েছে প্রায় ২০ কোটি টাকার।

মুরাদুল ইসলাম চকবাজার থানার পরিদর্শক তদন্ত করছেন মামলা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে