অনলাইনে প্রতিদিন বিনামূল্যে চিকিৎসা পাচ্ছেন ৫০০ রোগী

0
280

অনলাইনে প্রতিদিন বিনামূল্যে চিকিৎসা পাচ্ছেন ৫০০ রোগী

করোনাভাইরসের প্রাদুর্ভাবের কারণে চিকিৎসাসেবা পেতে ভোগান্তি পৌহাতে হচ্ছে। ভাইরাসে আক্রান্তের আশঙ্কায় সাধারণ রোগীদের মতো শঙ্কিত চিকিৎসকেরাও। করোনা পজেটিভ রোগীরা তথ্য গোপন করে চিকিৎসা নেয়ার কারণে এ শঙ্কা আরও বেড়ে গেছে।

এ পরিস্থিতিতে দেশের অধিকাংশ চিকিৎসক চেম্বারে রোগী দেখা বন্ধ রেখেছেন। রোগীদের ফোনও ধরছেন না অনেকে। অধিকাংশ হাসপাতালে ঠিকমতো চিকিৎসা সেবা পাওয়া যাচ্ছে না। দেশের এ ক্রান্তি লগ্নে কয়েকজন তরুণ চিকিৎসক অনলাইনের মাধ্যমে চিকিৎসাসেবা দেয়ার একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করেছেন। জরুরি প্রয়োজনে হাজার হাজার মানুষ সেখান থেকে চিকিৎসা নিয়ে উপকৃত হচ্ছেন।

এ তরুণ চিকিৎসকেরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ই-ডক্টর্স (eDoctors) নামের একটি গ্রুপের মাধ্যমে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে রোগীর তথ্য জেনে প্রেসক্রিপশন দিচ্ছেন। আর এ সবই করছেন বিনামূল্যে।

ই-ডক্টর্স গ্রুপটির অ্যাডমিন ডা. নাজমুল ইসলাম (শিশু সার্জারি বিশেষজ্ঞ) ও ডা. আমির হোসেনের (শিশু বিশেষজ্ঞ) কাছে এই অনলাইনভিত্তিক চিকিৎসাসেবার বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বলেন, তাদের মূল লক্ষ ছিল মানুষকে ঘরে বসে চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দেয়া। যেসব রোগের জন্য রোগীকে হাসপাতালে যাওয়ার প্রয়োজন হয় না রোগী চাইলে ঘরে বসে চিকিৎসা নিতে পারেন। সেইসব রোগীদের ঘরে বসে চিকিৎসা দেয়ার লক্ষে তারা গত ২১ শে এপ্রিল ‘২৪ ঘন্টা ফ্রি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শ’ শ্লোগানে কাজ শুরু করেন।
তারা প্রথমে ফোনের মাধ্যমে সাধারণ ঠাণ্ডা কাশির রোগীদের চিকিৎসাসেবা দেওয়া শুরু করেন। কিন্তু ফোনের মাধ্যমে সকল রোগের চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব ছিল না। তখন তারা একটি প্লাটফর্ম গড়ে তোলেন। সে প্লাটর্ফমের নাম ই-ডক্টর্স। সেখান থেকে এ গ্রুপ তৈরি করেন। যার মাধ্যমে এখন সব ধরনের চিকিৎসাসেবা দেয়ার চেষ্টা করছেন।

ডা. নাজমুল ও ডা. আমির এ বিষয়ে আরও জানান, তারা দুজনসহ বিভিন্ন বিভাগের মাত্র ১৪ জন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার নিয়ে যাত্রা শুরু করেন। বাকিরা হলেন, ডা. মাহমুদুল হাসান পান্নু (জেনারেল ও কলোরেক্টাল সার্জারী বিশেষজ্ঞ), ডা. রাসেল ফারুক (চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ), ডা. তনময় সাহা (মেডিসিন বিশেষজ্ঞ), ডা. জিয়াউর রহমান ও ডা. ফারিয়া তাবাসসুম তান্নি (দন্ত রোগ বিশেষজ্ঞ), ডা. আফিফা ফেরদৌস (অবেদন বিশেষজ্ঞ), ডা. বুশরা তানজিম (ভাইরাস বিশেষজ্ঞ), ফাতেমাতুজ জোহরা মুন্নি (পুষ্টি বিশেষজ্ঞ),ডা. জিল্লুর রনি (অর্থোপেডিক), ডা. ইসমাইল (নিউরোসার্জারী), ডা. সাইদা আফরিন (দন্ত চিকিৎসক) এবং দিনা আমিন।

তারা পর্যায়ক্রমে ৯ টি বিভাগ নিয়ে কাজ শুরু করলেও বর্তমানে তারা ৩০ টি বিভাগে একশর বেশী বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের মাধ্যমে গ্রুপটিতে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন। বর্তমানে গ্রুপের সদস্য সংখ্যা ১৫ হাজার। যা প্রতিদিনই বাড়ছে।

ডা. নাজমুল ও ডা. আমির আরও জানান, তারা প্রতিদিন পাঁচশরও বেশি রোগীকে চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন। প্রয়োজনে রোগীদের ফলোআপ চিকিৎসাও দিচ্ছেন।

ডা. নাজমুল জানান, এই গ্রুপ থেকে মেডিসিন, সার্জারি, গাইনি, চর্মরোগ, শিশু, শিশু সার্জারি, নিউরোমেডিসিন, নিউরোসার্জারি, চক্ষু, দন্ত, নাক-কান-গলা, বক্ষব্যাধি, অর্থোপেডিক, কার্ডিওলজি, কার্ডিয়াক সার্জারি, গাস্ট্রোএনন্ট্রোলজি, নেফ্রোলজি, ইউরোলজি, অনকোলজি, ফিজিক্যাল মেডিসিন, ইমার্জেন্সি মেডিসিন, এন্ডোক্রাইন ও ডায়াবেটিস, সাইকিয়াট্রিস্ট, কলোরেক্টাল সার্জারি, রেডিওলজি ও ইমেজিং, এনেসথেশিওলজি, প্যাথলজি, ভাইরোলজি, ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি ও পুষ্টি বিভাগের চিকিৎসাসেবা দেয়া হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে